এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের খুব কাছে গিয়ে হেরেছে বাংলাদেশ, অন্যদিকে আফগানদের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি শ্রীলঙ্কা। লঙ্কান বোলারদের তুলোধুনো করে হেসেখেলে অনেকটা আরামসে ম্যাচ জিতে নেয় এশিয়ার নতুন পরাশক্তি যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তান।

এশিয়া কাপে আজ টিকে থাকতে বাঁচা মরার লড়াইয়ে দুবাইয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা। সুপার ফোরে উঠতে হলে দুদলের সামনেই একই সমীকরণ, ম্যাচটি জিততে হবে। মাঠে জেতার লড়াই শুরু হওয়ার আগে ইতিমধ্যে চলছে দুদলের মাঠের বাইরের লড়াই, না হাতাহাতি কিংবা মারামারি নয়, লড়াইটি কথার!

দুই দলের কথার লড়াইটি শুরু করেন লঙ্কান দলপতি দানুস শানাক।
আফগানিস্তানের বিপক্ষে উদ্বোধনী ম্যাচ বিধস্ত হওয়ার পর সানাকা সংবাদ সম্মেলনে এসে জানান, আফগানদের চাইতে বাংলাদেশ সহজ প্রতিপক্ষ। সাকিব-ফিজ ছাড়া টাইগারদের দলে নেই বিশ্বমানের কোনো বোলার।

❝আফগানিস্তানের বিশ্বমানের বোলিং আক্রমণ আছে। আমরা জানি, ফিজ (মুস্তাফিজুর রহমান) একজন ভালো বোলার, সাকিব একজন বিশ্বমানের বোলার। এদের ছাড়া আর বিশ্বমানের বোলার নেই বাংলাদেশ দলে। আফগানিস্তানের সঙ্গে যদি তুলনা করি, তাহলে বাংলাদেশই সহজ প্রতিপক্ষ।❞

ব্যাপারটি শেষ হতে পারতো সেখানেই। তবে লঙ্কানদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে জলন্ত আগুনে ঘি ঢেলে দেওয়ার কাজটা করলেন খালেদ মাহমুদ সুজন। দানুস শানাকার মন্তব্যের জবাবে সুজন বলেন আমাদেরতো দুজন আছে, শ্রীলঙ্কার নাকি একজনও বিশ্বমানের বোলার দেখেন না তিনি।

❝আমি জানি না শানাকা কেন এমন বলেছে। আমি শুনেছি যে সে বলেছে, বাংলাদেশের সাকিব ও মুস্তাফিজ বাদে বোলার নেই। আমি তো শ্রীলঙ্কার কোনো বোলারই দেখি না। আমাদের অন্তত দুজন আছে।❞

শানাকার মন্তব্যে সুজনের এমন জবাবে চুপচাপ থাকতে পারেনি লঙ্কান কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান মাহেলা জয়াবর্ধনে। টুইটারে এই সাবেক লঙ্কান ক্রিকেটার লিখেন,

❝শ্রীলঙ্কার বোলারদের মাঠে নিজেদের ’ক্লাস’ দেখানোর এবং ব্যাটসম্যানদেরও মাঠে নিজেদের জাত চেনানোর এটাই মোক্ষম সময়।❞

যদিও কথার লড়াইয়ে কে এগিয়ে বা কে পিছিয়ে তাতে কিছু আসে যায় না সুপার ফোরে জায়গা করে নেওয়ার লড়াইয়ে। আসল লড়াই হবে মাঠে। সেখানে যারা আধিপত্য বিস্তার করতপ পারবে শেষ হাসি তারাই হাসবে। অন্যদলকে ধরতে হবে নিজ দেশের ফ্লাইট।

সুপার ফোরে কোন দল যাচ্ছে, বেঙ্গল টাইগাররা নাকি লঙ্কান সিংহরা জানতে হলে আপাতত অপেক্ষা করতে হবে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর্যন্ত।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন