ক্রিকেটের গন্ডি পেরিয়ে এবার বাংলাদেশ অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান পা রাখলেন হকিতে। না খেলোয়াড় হিসেবে নয়, একজন সংগঠক হিসেব, ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের মালিক হিসেবে।

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে শুরু হতে যাচ্ছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক হকি লিগ। অনেকেটা ক্রিকেটের বিপিএলের আদলে অনুষ্ঠিত হবে টুর্ণামেন্টটি। সেখানে অংশগ্রহন করবে সাকিবের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান মোর্নাক মার্ট। সোমবার রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লু’তে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সঙ্গে এসিই’র আনুষ্ঠানিক চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে।

হকিতে দল কেনা সাকিব জানান, এই খাতে তিনি প্রবল সম্ভাবনা দেখছেন। ‘হকির যে সম্ভাবনা বাংলাদেশে আছে, সেটা আমার মনে হয় অন্য যে কোনও স্পোর্টসের চেয়ে বেশি। তাই হকির সঙ্গে থাকতে পেরে আমি ভীষণ খুশি। হকি বিশ্বকাপে অংশ নেয় ১৬টি দল। বাংলাদেশ হকি র‌্যাংকিংয়ে ২৭তম অবস্থানে আছে। খুব বেশি তো দূরে না। সবাই চেষ্টা করলে, এখানে সম্মিলিতভাবে উদ্যোগ নিলে বাংলাদেশের হকিতে বিশ্বকাপ খেলা সম্ভব। ’

সাকিব আরো যোগ করেন, প্রথমত, বিকেএসপিতে ভর্তি হই। আমার রুমমেট ছিল হকির খেলোয়াড়। আমাদের বড় ভাইরাও ছিল হকিতে। হকির টুর্নামেন্ট দেখতে যেতাম আমাদের হকি মাঠে। সবার হকির প্রতি আলাদা আগ্রহ ছিল। একই জায়গায় আমরা সবাই বড় হয়েছি। ’

শুধু দল কেনাতে সন্তুষ্ট হতে চান না সাকিব। নিজের দলকে চ্যাম্পিয়ন করার লক্ষ্য তার।

❝যেহেতু একটা দল নিয়েছি। আমাদের চিন্তা থাকবে কীভাবে এই দলের খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স ভালো হয় এবং আমরা যদি সেটার একটা রোলমডেল হতে পারি, অন্যরা সেটা হয়তো অনুসরণ করতে পারবে। তাতে সামগ্রিকভাবে হকিরই একটা উন্নতি হবে।❞

অলরাউন্ডার সাকিব শুধু হকিতে দল কিনে থামতে চান না, বাংলাদেশের যেকোনো খেলায় নিজেকে যুক্ত করতে চান তিনি।

সাকিবের মতে খেলাধুলা মাদক থেকে দূরে রাখে তাই এই খাতে সাকিব নিজেকে জড়াতে চান।

❝সবচেয়ে বড় দিক হলো স্পোর্টস হলো এমন একটা জায়গা, যেখান থেকে আমরা মাদককে দূরে রাখতে পারি। এখন আমি যদি সেই জায়গা থেকে কিছু করার মতো অবস্থায় থাকি, তাহলে কেন সম্পৃক্ত হবো না। ❞

আগামী বছরের শুরুতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) সেখানেও ইতিমধ্যে দল নেওয়ার জন্য আবেদন করেছেন সাকিব।

সফল ক্রিকেটার সাকিব সংগঠক হিসেবে কতটা সফল হবেন তা জানতে হলে আপাতত অপেক্ষায় থাকতে হবে আপনাকে।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন