পাকিস্তানের কাছে হারের পর বিরাট কোহলি তার কিছু কষ্টের কথা সাংবাদিকদের সাথে বৈঠকে জানিয়েছেন। সেখানে তিনি তার টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার দুঃখের কথা বলেন। প্রেস কনফারেন্সে বলেছিলেন, “আমি যখন টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ি আমাকে শুধু একজন মাত্র প্রাক্তন খেলোয়াড় ফোন করেছিলেন। তিনি হলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি । অনেকের কাছেই আমার নাম্বার ছিল কিন্তু তারা কেউ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। এর থেকে বোঝা যায় কে আমার ভালো চায়। যদি সত্যিই কেউ আমার ভালো চাইতো তাহলে সে আমার সাথে যোগাযোগ করত।”

এমন মন্তব্যের পরে ইনসাইড স্পোর্টস নামে একটি ওয়েবসাইটকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ভারতীয় বোর্ড কর্মকর্তা বলেছেন, “বিরাট টেস্ট অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর বোর্ড এবং তার সতীর্থরা সবাই তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিল। বিরাট কোহলি কাকে মন্তব্য করছে তা আমার জানা নেই। তবে বোর্ড তাকে সমর্থন করেনি এটা বললে মিথ্যা হবে। বোর্ড কর্মকর্তারা সবাই তাকে নেট মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানিয়েছিল। ফর্মে ফেরার জন্য তাকে কিছুদিন বিরতিও দেয়া হয়েছিল।”

বিরাট কোহলি ও বোর্ড কর্মকর্তার দুজনেরই এমন মন্তব্যে বোর্ড ও বিরাটের সম্পর্কের মধ্যে কিছুটা ফাটলের চিহ্ন পাওয়া যাচ্ছে। এই ব্যাপারে ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক সুনীল গাওস্কারও তার বক্তব্য রেখেছেন। তিনি বলেছেন, “বিরাট কোহলি ঠিক কাকে মন্তব্য করেছেন তা ঠিকঠাক বোঝা যাচ্ছে না। বিরাট কোহলি স্পষ্ট করে বলা উচিত ছিল তিনি কার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলেছেন। বিরাটের উচিত ছিল তাকে সরাসরি জিজ্ঞেস করা তিনি কেন বার্তা পাঠালেন না।”


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন