চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইতালিয়ান ক্লাব নাপোলির কাছে বিধস্ত হলো লিভারপুল। ঘরের মাঠ দিয়েগো আরমান্দো মারাদোনা স্টেডিয়ামে গত আসরের রানর্সআপ হওয়া দলটিকে ৪-১ গোলে হারায় নাপোলি। দলের হয়ে জোড়া গোল করেন পিওতর জিলিনস্কি, একটি করে জিওভানি সিমেওনে ও আন্দ্রে ফ্রাঙ্ক জাম্বো আনগিসা। লিভারপুলের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন লুইস দিয়াস।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের হারিয়ে খুঁজতে থাকা লিভারপুলের সামনে সুযোগ ছিল ইউরো সেরার মঞ্চে নিজেদের প্রমান করে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়ার। তবে মাঠের খেলায় ঘটলো একেবারে ৩৬০° উল্টো ঘটনা। নাপোলির কাছে এক হালি হজম করতে হয়েছে লিভারপুলকে। যা সমর্থকদের কাঁটা গায়ে অনেকটা নুনের ছিটা দেওয়ার মতোই।

ম্যাচের মাত্র ৪৬ তম মিনিটে ওসিমহেনের নেওয়া শট গোলপোস্টে লাগলে গোল বঞ্চিত হয় নাপোলি। তবে গোলের জন্য একেবারেই অল্প সময় অপেক্ষা করতে হয়েছে দলটিকে। মাত্র পঞ্চম মিনিটে নিজেদের ডি-বক্স জেমস মিলনারের হাতে বল লাগলে স্বাগতিকদের পেনাল্টি উপহার দেন রেফারি। সফল স্পট কিক থেকে নাপোলিকে এগিয়ে নেন জিলিনস্কি। ১৮তম মিনিটে স্বাগতিকদের আরো পেনাল্টি উপহার দিয়ে বসেন লিভারপুল ডিফেন্ডার ভ্যান ডাইক। ডি-বক্সে মধ্যে প্রতিপক্ষের ফুটবলারকে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। আগেরবার ভুল করলেও এবার ওসিমহেনের নেওয়া স্পট কিক ঠেকিয়ে দেন অ্যালিসন।

৩১তম মিনিটে আনগিসার গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নাপোলি। বিরতিতে যাওয়ার আগে ৪৪তম মিনিটে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজের অভিষেক ম্যাচে গোল করেন সিমিওনে। এতে ৩-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় নাপোলি।

ইপিএল কিংবা উচল, ছন্দে নেই লিভারপুল।

বিরতি থেকে ফিরে মাত্র দুই মিনিটের মাথায় নিজের দ্বিতীয় ও দলের চতুর্থ গোলটি করেন জিলিনস্কি। ৪৯ তম মিনিটে লিভারপুলের হয়ে লুইস দিয়াস গোল শোধ করে ম্যাচে ফেরার আভাস দেন ক্লপের দলটি। তবে শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের ব্যবধানের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় অলরেডদের।

গ্রুপের অন‍্য ম‍্যাচে রেঞ্জার্সকে ৪-০ গোলে হারিয়েছে আয়াক্স।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন