পিচের মাঝেই ঝগড়া শুরু এবং তার থেকে এক পর্যায়ে মারামারিতে রূপ নেয়ার মত অবস্থায় সৃষ্টি হল। ঘটনাটি ঘটে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের মধ্যকার ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯ তম ওভারের সময়। সে সময় পাকিস্তানের দরকার ছিল ৮ বলে ১১ রানের। পিচে ব্যাটিং করছিলেন আসিফ আলী এবং বোলিং করছিলেন ফারিদ আহমেদ।

ওভারের পঞ্চম বলে আসিফ আলী একটি ক্যাচ তুললে তা লুফে নেন করিম জান্নাত। আসিফ আলীকে আউট করে তার সামনে আনন্দ উত্তেজনায় হাত উঁচু করে কিছু একটা ইঙ্গিত করেন আফগান বলার ফারিদ আহমেদ। বিষয়টি মোটেও পছন্দ হয়নি পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান আসিফ আলীর। তিনিও ব্যাট নিয়ে তেড়ে যান ফরিদ আহমেদের দিকে।

এরপর তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও ধাক্কাধাক্কি হয়। আসিফ আলী ব্যাট তুলে ফারিদকে মারার ইঙ্গিত করেন, হাত তুলে ঘুষি দেখান। ঘটনাটি যাতে বড় কিছুতে রূপ না নেয় তাই সকল আফগানিস্তানের খেলোয়াড় এসে তাদের দুইজনকে শান্ত করার চেষ্টা করে। মাঠে প্রবেশ করে হাসান আলীও ফারিদকে শান্ত করার চেষ্টা করে। পরিস্থিতি সামলে নেন তাঁরা। নইলে মাঠের মধ্যেই একে অপরের গায়ে হাত তুলে দেওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হয়ে গিয়েছিল। পরিস্থিতি সামলাতে ছুটে আসেন আম্পায়াররাও।

তখনও শেষ ওভারে পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ১১ রান হাতে ছিল মাএ একটি উইকেট। কিন্তু পরপর দুইটি বলে দুইটি ছয় মেরে ম্যাচ নিজেদের করে নেন পাকিস্তান বোলার নাসিম শাহ।

এর আগে আফগানিস্তান ব্যাট করে মাত্র ১২৯ রানের করতে পেরেছিল। তবুও ম্যাচটিতে উত্তেজনার কোনো কমতি ছিল না। আফগানিস্তান শেষ পর্যন্ত লড়াই করেছে কিন্তু শেষ ওভারে নাসিম শাহের দুইটি ছয় তাদের ফাইনাল খেলার স্বপ্ন ভঙ্গ করে দেয়।

এই ম্যাচ জয়ের ফলে এশিয়া কাপের ফাইনালে উঠে গেল শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান। আগামী রবিবার এশিয়া কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হবে তারা।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন