আগের মৌসুমে লা লিগা ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা রিয়াল মাদ্রিদ কোচ আনচেলত্তি ও মিডফিল্ডার ক্রুস জানিয়েছিলেন নতুন মৌসুমের ছয়টি শিরোপার সবকটি জিততে চান তারা। সে লক্ষ্যে আর উয়েফা সুপার কাপের ম্যাচে জার্মান ক্লাব ফ্রাঙ্কফুর্টের মুখোমুখি হয়েছিলো রিয়াল মাদ্রিদ।

ফিনল্যান্ডের হেলসিংকি অলিম্পিক স্টেডিয়ামে ম্যাচটিতে ২-০ গোলে জিতে রিয়াল মাদ্রিদ। রিয়ালের হয়ে গোল দুটি করেন ডেভিড আলাবা ও করিম বেনজেমা।

পুরো ম্যাচে বল দখল ও আক্রমনে দাপট দেখিয়ে খেলতে থাকা রিয়াল মাদ্রিদকে মাঝেমধ্যে ঠিকই চোখ রাঙ্গিয়েছিলো প্রতিপক্ষরা। তবে কোচ আনচেলত্তির শিষ্যরা হার না মানা মানসিকতায় ট্রফি কেবিনেটে যোগ করে আরো একটি শিরোপা।

ম্যাচের ১৪তম মিনিটে পিছিয়ে পড়তে পারতো রিয়াল, তবে সে যাত্রায় দলকে গোল হজম করা থেকে রক্ষা করেন বেলজিয়াম গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়া।

১৭ তম মিনিটে নিশ্চিত এক গোলের সুযোগ আসে রিয়ালের সামনে ভালর্ভাদের পাস থেকে নেওয়া ভিনিসিয়াসের শট প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে পরাজিত করলেও গোললাইনে দূর্দান্ত ডিফেন্স করে দলকে বাঁচিয়ে দেন ফ্রাঙ্কফুট ডিফেন্ডার।

৩৭তম ভিনিসিয়াস জুনিয়র দূর্দান্ত এক দৌড়ে বল নিয়ে প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে ঢুকে পড়ে। তার নেওয়া শট প্রতিপক্ষের গোলরক্ষক কর্ণারের বিনিময়ে রক্ষা করলেও কর্ণার থেকে উড়ে আসা বল থেকে বেনজেমার ও পরে ক্যাসিমেরোর হেডে বল পড়ে আলবার পায়ে। গোলপোস্ট ফাঁকা পেয়ে ঠান্ডা মাথায় বল জালে জড়ান রিয়াল ডিফেন্ডার। তাতেই বিরতিতে যাওয়ার আগে ১-০ তে লিড নেয় মাদ্রিদ।

ম্যাচে প্রথম গোলের পর গোলদাতা আলাবার উল্লাস।

৪১তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ এসেছিলো বেনজেমার সামনে তবে বাইরে মেরে দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করেন ফরাসি স্ট্রাইকার।

৬০তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া ক্যাসিমেরোর শট ক্রসবার কাঁপালে গোল বঞ্চিত হয় রিয়াল।

৬৫ তম মিনিটে আবারো দূর্দান্ত রানিংয়ে বল নিয়ে প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন ভিনিসিয়াস, সেখান থেকে পাস দেন অপেক্ষায় থাকা করিম বেনজেমাকে। ভিনির পাস থেকে এবার আর গোল করতে ভুল করেননি বেনজেমা। ফরাসি এই তারকার ঠান্ডা মাথার ফিনিশিংয়ে ২-০ তে এগিয়ে যায় মাদ্রিদ। গোলটি করে বেনজেমা শুধু ব্যবধান দ্বিগুণ করেননি। বরং রিয়ালের জার্সিতে স্পর্শ করেছেন এক দারুণ মাইলফলক। ৩২৪ গোল নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন এই ফরাসি তারকা। ৪৫০ গোল করা একমাত্র ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো আছে তার উপরে।

রিয়ালের ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতার মাইলফলক স্পর্শ করা করিম বেনজেমা।

শেষ পর্যন্ত কোন দল আর গোল করতে না পারলে ২-০ গোলের জয়ে তৃতীয় দল হিসেবে সর্বোচ্চ পঞ্চমবারের মতো উয়েফা সুপার কাপ জিতে কোচ আনচেলত্তির শিষ্যরা। কোচ হিসেবে রিয়ালে হয়ে ২ বার ও সর্বোচ্চ চার বার এই শিরোপা জয়ের রেকর্ড গড়েন ইতালিয়ান কোচ আনচেলত্তি।

রিয়াল মাদ্রিদ কোচ কার্লো আনচেলত্তি।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন