রবিবার এশিয়া কাপের ফাইনালে ২৩ রানে পাকিস্তান‌কে হারিয়েছে শ্রীলংকা। ম্যাচটি হারার পর শোয়েব মালিকের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে করা একটি পোস্ট দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে সকল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তিনি লিখেছেন,‌ আমরা কবে বন্ধুত্ব, পছন্দ-অপছন্দের সংস্কৃতি থেকে বের হতে পারব? সৃষ্টিকর্তা সব সময় সৎকে সাহায্য করেন।’ এটি লেখার কারণ যদিও তিনি ব্যাখ্যা করেননি।

তবে বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন মূলত এশিয়া কাপের মূল দল থেকে বাদ পড়ার কারণেই তিনি তার ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। এশিয়া কাপের আগে বেশ ভালোই পারফর্ম করছিলেন শোয়েব মালিক। এশিয়া কাপের দলে জায়গা না পাওয়ার কোন কারণই ছিল না শোয়েব মালিকের।

শোয়েব মালিকের টুইটে ইঙ্গিতটা স্পষ্ট—পাকিস্তান টিম ম্যানেজমেন্ট এশিয়া কাপের স্কোয়াড গঠনে নিজেদের পছন্দ-অপছন্দ ও বন্ধুত্বকে প্রাধান্য দিয়েছে।

গতবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে সেমিফাইনাল নিয়ে যাওয়াই বড় অবদান রেখেছিল পাকিস্তানি এই অলরাউন্ডার। মূলত শোয়েব মালিকের বিপক্ষে যা কাজ করেছে তা হলো তার বয়স।শোয়েব মালিকের বর্তমান বয়স ৪০ বছর।

পরবর্তী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মালিক খেলতে পারবেন কিনা তা নিয়ে সংশয় থাকার জন্যই হয়তো শোয়েব মালিককে এশিয়া কাপের দলে রাখা হয়নি। নতুন কাউকে সুযোগ দিতেই হয়তো এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

পাকিস্তানের হারের পর এই টুইটটিকে ভালোভাবে নিচ্ছেন না পাকিস্তানি সমর্থকেরা। আবার অনেক সমর্থক মনে করছেন বড় ম্যাচে শোয়েব মালিকের অভিজ্ঞতা কাজে লাগতে পারত পাকিস্তান।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন