ক্রিকেট কিংবা ফুটবল, দূর্দান্ত খেলা বাংলাদেশ সবসময় তালগোল পাকিয়ে ফেলে প্রতিপক্ষ ভারত হলে। তবে এবার আর তালগোল পাকালো না বাংলাদেশের নারী ফুটবলাররা। অভিজ্ঞতা ও শক্তির দিকে এগিয়ে থাকা ভারতের জালে গুনে গুনে তিন গোল দিয়ে গ্রুপ সেরার খেতাব জিতে সেমিফাইনালে পা রাখলো সাবিনা,কৃষ্ণা, সানজিদারা।

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশীপে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে শক্তিশালী ভারতকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। দলের হয়ে জোড়া করেন সিরাত জাহান, বাকি গোলটি করেন কৃষ্ণা রাণী সরকার।

ভারতের মেয়েদের বিপক্ষে এর আগে নয়বার খেলা বাংলাদেশের মেয়েরা হেরেছে নয়বার। হজম করেছে ৪৫ টি গোল। প্রাপ্তি বলতে ২০১৬ সালে ভারতের মাটিতে তাদের বিপক্ষে ড্র করা। তবে এবার নেপালের কাঠমুন্ডুতে দেখা মিললো একেবারে ভিন্ন দৃশ্য। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ভারতের (৫৮) চেয়ে ৮৯ ধাপ পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ (১৪৭তম) একেবারে বিধস্ত করে দেয় অভিজ্ঞ ও শক্তিশালী দলটিকে।

ম্যাচের মাত্র ১২তম মিনিটে কৃষ্ণা রানীর পাস থেকে গোল করে বাংলাদেশকে লিড এনে দেন সিরাত জাহান। ২২তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করে বাংলাদেশ। এবার গোলদাতা আগেরবার গোল করানো কৃষ্ণা।

কৃষ্ণা রানী সরকার

বিরতি থেকে ফিরে ৫৪তম মিনিটে নিজের জোড়া ও দলের তৃতীয় গোলটি করেন সিরাত জাহান।

২০১৫ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ইংলিশ ক্লাব ওয়েস্ট হামের নারী দলে খেলার অভিজ্ঞতা থাকা ভারতীয় গোলরক্ষক অদিতি চৌহানকে পুরো ম্যাচে ব্যস্ত থাকতে হয়েছে বাংলাদেশের আক্রমন সামলাতে। মাঝমাঠে মারিয়া মান্দাদের পারফরম্যান্সও নজর কেড়েছে সকলের।

ওয়েস্ট হামের নারী দলে খেলা অদিতি চৌহান

বিগত ম্যাচগুলোর ন্যায় ভারতের বিপক্ষে ম্যাচেও নেপালের কাঠমুন্ডুর স্টেডিয়ামে ছিলো বাংলাদেশী দর্শকদের আধিপত্য। গ্যালারি থেকে মেয়েদের সমর্থনে বাংলাদেশ বাংলাদেশ স্লোগানে কাঠমুন্ডুকে এক টুকরো বাংলাদেশ বানিয়ে রাখেন দর্শকরা।

১৬ সেপ্টেম্বর সেমিফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভুটানের মেয়েরা।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন