সালাউদ্দিন-মুশের্দীর বিরুদ্ধে গত বাফুফে নির্বাচনের আগে যে আন্দোলন হয়েছিলে দেরিতে হলেও তার সুফল পেতে যাচ্ছে দেশের ফুটবল। সালাম মুশের্দীর অপকর্মের কারণে সালাউদ্দিন সাহেব যখন বুঝতে পারলেন তার পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গেছে তখনই তিনি একটু নড়েচড়ে বসতে শুরু করেছেন বাফুফে প্রেসিডেন্ট। মুর্শেদীকে সরিয়ে লিগ কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিচ্ছেন নিজের কাঁধে।

বাফুফের বিরুদ্ধে আরো একটি অভিযোগ ছিল প্রবাসী ফুটবলারদের নিয়ে অনিহার। তবে কাজী সালাউদ্দিন এবার শুনালেন আশার বাণী। সেটাও আবার ইংলিশ প্রবাসী হামজা চৌধুরীকে নিয়ে।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব লেস্টার সিটির ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হামজা চৌধুরী বর্তমানে ধারে খেলছেন ইংলিশ ফুটবলের দ্বিতীয় সারির ক্লাব ওয়াটফোর্ড এফসিতে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেন হামজা। এতে আবারো জাতীয় দলের জার্সিতে হামজাকে খেলানোর বিষয়টি আলোচনার হটকেকে পরিণিত হয়।

হামজা চৌধুরীর আগ্রহের পর এবার তাকে লাল সবুজের জার্সিতে খেলার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন।

বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন এই বিষয়ে বলেন, ‘বাফুফের তরফ থেকে তাকে (হামজা) খুব দ্রুতই আমন্ত্রণ জানানো হবে। সে যা চায় তাকে সেটাই দেওয়া হবে। তাকে সব সাহায্য করতে রাজি আছি। আর তার আগ্রহের বিষয়টি আমরা ভালোভাবেই গ্রহণ করেছি।’

বাফুফে বস কাজী সালাউদ্দিন

যদিও এর আগে ২০১৯ সালে বাংলাদেশের হয়ে খেলার সম্মতি জানিয়েছেন হামজা, উঠেছিল এমন গুঞ্জনও। সে সময় বাফুফের পক্ষ থেকে হামজার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু সাড়া মেলেনি।

তবে এবার আর গুঞ্জন নয়, সোমবার মুসলিম ক্রীড়াভিত্তিক গ্রুপ নুজুম স্পোর্টসের এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন হামজা। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আরেক ফুটবলার ও কোচ আনোয়ার উদ্দীন। সেখানে হামজা বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি বাংলাদেশের হয়ে খেলা চিন্তা করি। বাংলাদেশের হয়ে খেলতে পারলে আমি আরও বেশি গর্বিত ও সম্মানিত হব। আগামী কয়েক বছরে (এখানে) আমি কতটা ভালো করতে পারি সেটা দেখতে চাই।’

হামজা চৌধুরী

সামনে শীতের ছুটিতে বাংলাদেশে বেড়াতে আসার ইচ্ছার কথাও জানিয়েছেন হামজা, এবার সব ঠিকঠাক থাকলে লাল সবুজের জার্সিতে হামজাকে দেখার স্বপ্ন বুনতেই পারেন দেশের ফুটবল প্রেমিরা।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন