আাগমী নভেম্বরের ২০ তারিখ পর্দা উঠছে বিশ্বকাপ ফুটবলের। মাঠে বসে বিশ্ব ফুটবলের সবচয়ে জনপ্রিয় ও বড় আসরের ম্যাচগুলো উপভোগ করতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ফুটবল সমর্থকদের গন্তব্য এখন কাতারের দোহা। তবে সম্প্রতি আয়োজকদের নতুন এক কান্ডে সোরগোল চলছে ফুটবল পাড়ায়। তা হলো আসন্ন কাতার বিশ্বকাপে দোহায় ভ্রমন করতে হলে ইসরায়েলীদের পরিচয় দিতে হবে ফিলিস্তিনি হিসেবে।

২০২২ কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ ম্যাচের টিকিট বুকিং এবং হসপিটালিটি প্যাকেজের জন্য যে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, তাতে ইসরায়েলকে আলাদা দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি। তাই কোনো ইসরাইলের নাগরিক দোহায় যেতে চাইলে তাকে তার দেশ হিসেবে নির্বাচন করতে হবে ফিলিস্তিনকে।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘মার্কা’ জানিয়েছে, ❝উইন্টারহিল হসপিটালিটি❞ নামক একটি কোম্পানিকে দেওয়া হয়েছে কাতার বিশ্বকাপের টিকেট ও হসপিটালিটির দায়িত্ব। অনলাইনে তাদের কার্যক্রমও ইতিমধ্যে শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

প্রতিষ্ঠানটির এমন সিদ্ধান্ত প্রকাশ্যে আসতেই তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে ফিফা। বুধবার প্রথম ইসরায়েলি গণমাধ্যম এই বিষয়টি নিয়ে খবর প্রকাশ করে। এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন ইসরায়েলিরা।

তবে আরবসহ মুসলিম বিশ্বের ফুটবল ভক্তরা এই ঘটনায় ভীষণ খুশি। তারা এটাকে ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের আগ্রাসনের নীরব প্রতিবাদ হিসেবে দেখছেন। এছাড়া কাতার সরকারকেও প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন তারা।

এর আগে সমকামিতা, অবৈধ সম্পর্ক ও অ্যালকোহলের বিরুদ্ধে নিজেদের শক্ত অবস্থানের কথা জানিয়েছিলো স্বাগতিক কাতার।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন