ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার মধ্যকার গত বছরের বাতিল হয়ে যাওয়া বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচটির খেলা আর হবে না, দক্ষিণ আমেরিকার দুই দেশের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন। আসল ম্যাচটি, গত বছরের সেপ্টেম্বরে, সাও পাওলোতে অনুষ্ঠিত হওয়ার সাত মিনিটের মাথায় ব্রাজিলিয়ান স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা ব্রাজিলিয়ান ফেডারেল পুলিশকর্মীদের নিয়ে মাঠে ঢুকে ঢুকে পড়ে এবং খেলা বন্ধ করে দেয়, তাদের দাবি কোভিড -19 কোয়ারেন্টাইন লঙ্ঘন করেছেন আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড়ে।

উভয় দেশ ইতিমধ্যেই বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন করেছে, যা 20 নভেম্বর কাতারে শুরু হবে, তারা বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার কাছে ম্যাচটি বাতিল করার জন্য অনুরোধ করেছিল। আর ফিফাও তাদের অনুরোধে সাড়া দিল।

ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (সিবিএফ) এবং আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ) যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে যে, “ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচটি খেলা হবে না।”

“এএফএ, সিবিএফ এবং ফিফা কোর্ট অফ আরবিট্রেশন ফর স্পোর্টে (সিএএস) এই বিরোধের সমাধান করল।”

যদিও এর আগে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা তাদের ম্যাচটি বাতিল করার প্রথমবারের আবেদন ফিফা বাতিল করে দেয়, পাশাপাশি তাদের কয়েক হাজার ডলার জরিমানাও করেছিল।

দুটি ফেডারেশন তখন তাদের মামলাটি সিএএস-এ নিয়ে যায়, যা এই মাসে শুনানি করার কথা ছিল।

উভয় দেশই একক দক্ষিণ আমেরিকান কোয়ালিফাইং গ্রুপে বেশ কয়েকটি ম্যাচ বাকি রেখে বিশ্বকাপের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছে।

ম্যাচটি পুনরায় খেলা হলেও, এর ফলাফল বাছাইপর্বের ফলাফলকে প্রভাবিত পারবেনা, ব্রাজিল গ্রুপের শীর্ষে এবং আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় স্থানে থেকে যাবে।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন