রবীন্দ্রনাথের শেষের কবিতা এবং ক্রিষ্টিয়ানো রোনালদোর দলবদলের খবর যেন একই সূত্রে গাঁথা। দুটির একটিও শেষ হয়েও যেন হলো না শেষ।

 

গত মৌসুমের জুভেন্টাস ছেড়ে ঘরের ছেলে ফিরেন ঘরে, তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ৩৭ বছর বয়সী বুড়ো রোনালদো নিজের সর্বোচ্চটা দিয়েও পারলো না দলকে সেরা চারে রাখতে। দলের বাজে পারফরম্যান্সে রোনালদোর ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স ছিলো অনেকটা মেঘে ডাকা তারার ন্যায়।

 

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলাতে না পারার কারণে রোনালদোর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়ার গুঞ্জনে বেশ সরব ছিলো ফুটবল বিশ্ব। চেলসি, বায়ার্ন থেকে শুরু করতে পিসএজি, অত্যালেটিকো মাদ্রিদের মতো দলগুলোর কাছে রোনালদোর এজেন্ট তাকে কেনার জন্য প্রস্তাব দিয়েছিলেন তবে শীর্ষ সব ক্লাব রোনালদোকে প্রত্যাখান করার খবর রটে গণমাধ্যমে৷ এসব নিয়ে গণমাধ্যমের উপর রোনালদো ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন কয়েকবার।

 

 

রোনালদোকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে দিতে রাজি হওয়ার ঘটনা গনমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার ফর রোনালদো আরো একবার নিজের ক্ষোভ ঝাড়লেন গনমাধ্যমের উপর।

ইনস্টাগ্রামে রোনালদো লিখেন, ❝সপ্তাহ দুয়েক আগে তারা যখন সাক্ষাৎকার নিল, তখনই তো সত্যটা জানে।❞

রোনালদো আরো যোগ করেন তার নোটবুকে নাকি হিসেব করা আছে তাকে নিয়ে করা মন্তব্যগুলোর কতটি সত্য কতটি মিথ্য।

❝আমার একটি নোটবুক আছে। গত কয়েক মাসে আমাকে নিয়ে ১০০ খবর হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র পাঁচটিই সত্য❞

পাঁচবারের বর্ষসেরা রোনালদো আসলেই কি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড শিবিরে থাকছেন নাকি পাড়ি জমাবেন নতুন ঠিকানায় তা জানতে আপাতত অপেক্ষার প্রহর গুনতে হবে ভক্তদের।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন