ওয়ানডে ক্রিকেটে বাঘের মতো খেলা বাংলাদেশ দল টি-টোয়েন্টি ফরমেটে অনেকটা বিড়ালের রূপ নেয়। বাঘের হুংকার রূপান্তর হয় মিয়াওওওওওও শব্দে। কথাগুলো মজার ছলে বলা হলেও বাংলাদেশ ক্রিকেটে বাস্তবটা ঠিক এমনই কঠিন।

টি-টোয়েন্টি ফরমেটে একেবারে নাজেহাল অবস্থা বাংলাদেশের। ব্যাটিং, বোলিং কিংবা ফিল্ডিং এক সাথে জ্বলে উঠতে পারছে না দলটি। ঘুরপাক খাচ্ছে ব্যর্থতার বৃত্তে।

দল থেকে অবসর নিয়েছেন তামিম-মুশফিকের মতো সিনিয়ার ক্রিকেটাররা। বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা হয়নি আরেক সিনিয়র মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। তবে নির্বাচকরা জানিয়েছেন ভবিষ্যতে আবারো সুযোগ পেতে পারেন রিয়াদ।

এশিয়া কাপের আগে কোচ ও অধিনায়ক পরিবর্তন করে বিসিবি সভাপতি শুনিয়েছিলেন টি-টোয়েন্টিতে নতুন শুরুর আশার বাণী। জানিয়েছিলেন তাদের লক্ষ্য এশিয়া কাপ নয়, অষ্টেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তবে সম্প্রতি বিসিবি সভাপতির মুখে শোনা গেলো নতুন কথা! পাপন জানান এবারের বিশ্বকাপ নয়, বাংলাদেশর লক্ষ্য পরের বিশ্বকাপ। হয়তো বিসিবি বস নিজেই জানেন না তাদের লক্ষ্য আসলে কি?

তাছাড়াও রিয়াদ যে বাজে পারফরম্যান্সের কারণে বাদ পড়েছেন সে বাজে পারফরম্যান্স দিয়েও দলে জায়গা নিশ্চিত করেছেন ওপেনার নাজমুল হাসান শান্ত। ওয়ানডেতে পারফর্ম করা এনামুলকে টি-টোয়েন্টিতে ডেকে বাজে পারফরম্যান্সের অজুহাতে আবারো ছিটকে ফেলা হয়েছে। দীর্ঘদিন পর দলের বাইরে থাকা সাব্বিরকে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে ওপেনিংয়ে।

তাছাড়াও বাংলাদেশ দলের শিক্ষা সফরের অংশ হিসেবে আরেক ওপেনার ইমন পারভেজকে এতদিন দলে নিয়ে ঘুরার পর কোনো রকম সুযোগ না দিয়ে বাদ দেওয়া হয়েছে স্কোয়াড থেকে।

টি-টোয়েন্টি ফরমেট নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পরিকল্পনা যেন মাঠের বাজে পারফরম্যান্সকেও ছাড়িয়ে যাচ্ছে দিন দিন।

টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের গন্তব্যহীন এই ছুটে চলা শিক্ষা সফর আদৌ কি শেষ হবে? এমন প্রশ্নের উত্তর জানতে হলে আপাতত আপনাকে অসীম ধৈর্যের অধিকারী হতে হবে।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন