প্রথমবারের মতো নতুন চ্যাম্পিয়ন পেতে যাচ্ছে সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশীপ। এখন পর্যন্ত হওয়া প্রতিযোগিতাটির মোট সাত আসরের সবগুলোতেই শিরোপা জিতেছে ভারত। তবে এবার সেমিফাইনালে স্বাগতিক নেপালের কাছে হেরে ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয় ভারত। ফাইনালে নেপালের প্রতিপক্ষ ভারত। উভয় দল অবশ্য আগেও ফাইনাল খেলেছে তবে ভারতের কাছে হারের তিক্ত স্বাদ নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে দল দুটোকে। এবার দুই দলের সামনেই সমান সুযোগ নতুন ইতিহাস রচনা করার।

২০১৬ সালে ভারতের কাছে ফাইনাল হারা বাংলাদেশের সামনে এবার হাতছানি দিচ্ছে প্রথমবার সাফের শিরোপা ঘরে তোলার। পুরো টুর্ণামেন্টে অপ্রতিরোধ্য গোলাম রাব্বানী ছোটনের দলের পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়বে নেপাল ও স্টেডিয়াম ভর্তি সমর্থকরা।

অন্যদিকে পুরো টুর্নামেন্টে চার ম্যাচে মোট ২০ গোল দেওয়া বাংলাদেশকে আটকাতে বেশ হিমশিম খেতে হবে নেপালকে। বিশেষ করে দুই হ্যাট্রিকসহ মোট আট গোল করা বাংলাদেশ অধিনায়ক সাবিনা খাতুনকে আটকাতে বেশ মনোযোগ দিতে হবে স্বাগতিকদের।

সাবিনা খাতুন।

শুধু সাবিনাকে আটকালেই যে বেঁচে যাবে তেমনটি না। সাথে কৃষ্ণা রানী, সিরাত জাহানদেরও উপর রাখতে হবে কড়া নজর। সাথে চ্যালেঞ্জ থাকবে ২০ গোল দেওয়ার বিপরীতে কোনো গোল হজম না করা বাংলাদেশের রক্ষণভাগ ভেঙ্গে গোলরক্ষক রূপনা চাকমার পরিক্ষায় পাস করার।

শক্তিমত্তায় পিছিয়ে থাকলেও নেপাল এগিয়ে থাকবে স্বাগতিক দর্শকদের সমর্থনে। তাছাড়াও পাঁচ আসরের চারটিতে ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতা নেপালকে খানিকটা এগিয়ে রাখবে বাংলাদেশ থেকে।

সাফের নতুন চ্যাম্পিয়ন হবে কারা অপ্রতিরোধ্য বাংলাদেশ নাকি স্বাগতিক নেপাল? উত্তর জানতে চোখ রাখতে হবে আগামীকালের ফাইনালে।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন