গতকাল উৎসবে মেতেছিল ব্যস্ত নগরী ঢাকা। ঢাকার বুকে ফুটবলপ্রেমীদের এমন উল্লাস আগে কখনো দেখেনি নতুন প্রজন্ম। দাদুর মুখে বাংলার ফুটবলের জন্য মানুষের যে উদ্দীপনার গল্প শুনে বড় হয়েছে নতুন প্রজন্ম তার ছোটখাটো একটি চিত্র দেখা গেলো গতকাল।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর নেপালকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো সাফের শিরোপা জিতে বাংলাদেশ। ম্যাচের আগে সানজিদার এক স্ট্যাটাসে যেন বদলে গেলো পুরো দেশের চিত্র। সারারাত জেগে ইউরোপীয়ান ফুটবল দেখা ছেলেটিও সেদিন ফাইনালে চোখ রেখেছিল। সাবিনারা যখন এশিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জিতে তখনই সবাই আওয়াজ তুলে সাবিনা-সানজিদাদের একটি ছাদখোলা বাসে শিরোপা উদযাপন করার সুযোগ করে দিতে। যুব ও ক্রিড়া প্রতিমন্ত্রীর কল্যাণে পূরণ হয় সানজিদাদের স্বপ্ন। ঢাকার বুকে রচিত হয় নতুন এক ইতিহাস। তবে এই আনন্দ, উদ্দীপনার মাঝেও ঘটে গেলো অনাঙ্ক্ষিত এক ঘটনা। বিমানবন্দরে লাকেজ থেকে যে চুরির একটি ঘটনা সবার মুখে মুখে। তার জলন্ত আরো একটি প্রমান পাওয়া গেলো গতকাল। সাফের ফাইনালে জোড়া গোল করে দলকে শিরোপা এনে দিয়েছেন যিনি সেই কৃষ্ণা রাণী সরকারের ব্যাগ থেকে চুরি হয়েছে আড়াই লাখ টাকা। বিমানবন্দর থেকে শোভাযাত্রায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে জানান কৃষ্ণা।

তিনি বলেন, ❝যেহেতু দেশের আসার পর আমাদের জন্য বড় ধরনের আয়োজন ছিল, এজন্য আমরা আমদের হ্যান্ড ব্যাগটাও লাগেজের ভেতরে রেখেছিলাম। পরে যখন লাগেজ খুলি তখন দেখি ভেতরের ছোট ব্যাগের চেইন খোলা। ব্যাগের ভেতরে আমার ৯০০ ডলার শামসুন্নাহার সিনিয়রের ৪০০ ডলারসহ আরও অনেকের কিছু ডলার ছিল। বাংলাদেশি টাকায় যার মূল্য আড়াই লাখ টাকার মতো। সেগুলোর কিছুই নেই ব্যাগের ভেতর।❞

শুধু যে কৃষ্ণার টাকা চুরি হয়নি এমনটি না। আরও কয়েকজন ফুটবলারের ব্যাগের তালা ভাঙ্গা ছিল বলেও জানান তিনি। তবে তারা বিষয়টি নিয়ে কোনো অভিযোগ করেনি কতৃপক্ষের কাছে। আজ বাফুফে হয়তো যোগাযোগ করতে পারে বিমানবন্দরে।


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন