জিম্বাবুয়ে সফরের জন্য উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান সোহানকে অধিনায়ক ঘোষণা করার পর প্রথমবারের মতো গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেন সোহান। মাঠের পারফরম্যান্স কেমন হবে সেটা সময় বলে দিবে তবে গণমাধ্যমকর্মীদের ছুঁড়ে দেওয়া ইর্য়কা কিংবা বাউন্সের মতো সকল প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সাবলীল ভাবে।

আগামী মঙ্গলবার জিম্বাবুয়ের উদ্দেশ্য দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। তাই আজ রোববার গণমাধ্যম কর্মীদের মুখোমুখি হয়ে সোহান জানালেন অধিনায়ক হিসেবে তার লক্ষ্যের কথা।

বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক হওয়াটা গর্বের হলেও সোহান চান না রোমাঞ্চকর এই অনুভূতিতে আপাতত ভেসে না গিয়ে চ্যালেঞ্জ নিতে।

❝এটা অবশ্যই গর্বের ব্যাপার। সামনে যে চ্যালেঞ্জটা আছে, সেটা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করছি। খুব বেশি রোমাঞ্চ বা এসবের কোনো সুযোগ নেই। মনে হয়, দল হিসেবে সেরাটা দেওয়াই লক্ষ‍্য।❞

“নেতৃত্ব পাওয়া নিয়ে খুব বেশি চিন্তা করার কিছু নেই। আমি স্বাভাবিক থাকার চেষ্টা করছি। অবশ‍্যই এট গর্বের ব‍্যাপার। এটা অবশ‍্যই বড় চ‍্যালেঞ্জ আমার জন‍্য।❞

 

অধিনায়কত্ব যে সোহান প্রথমবারের মতো পালন করবেন এমনটিও না। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ, জাতীয় ক্রিকেট লিগ, বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার অভিজ্ঞতা আছে সোহানের।

 

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৩৩ ম‍্যাচে ১২.৯০ গড় ও ১১১.৯৮ স্ট্রাইক রেটে ২৭১ রান করেছেন সোহান। সর্বোচ্চ অপরাজিত ৩০। একজন ব‍্যাটসম‍্যানের জন‍্য যা আদর্শ নয়। তবে ছোট ছোট ইনিসগুলোর প্রভাবকে বড় করে দেখছেন সোহান।

তার মতে, “টি-টোয়েন্টিতে আমরা যারা মিডল অর্ডারে বা লোয়ার অর্ডারে ব‍্যাটিং করি, সেখানে রানের সংখ্যার চেয়ে ইমপ্যাক্টটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ১৫-২০ রান দেখতে অনেক ছোট লাগতে পারে তবে আমার মনে হয়, এই রান খেলায় কতটা প্রভাব রাখতে পারছে সেটাই আমার চিন্তা থাকবে। টি-টোয়েন্টিতে আমি যেখানে ব‍্যাটিং করি সেখান থেকে পঞ্চাশ বা একশ করার সুযোগ খুব কম থাকে। দলে চাহিদা যতটুকু থাকবে সেই ইম্প‍্যাক্ট আমি ফেলার চেষ্টা করব।”

অধিনায়ক সোহানের ভাবনা আপাতত জিম্বাবুয়ের সফর ঘিরেই। বিশ্বকাপ কিংবা এশিয়া কাপ নিয়ে এখনই ভাবতে চান না সোহান


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন