ওয়ানডে’তে বাংলাদেশ যেভাবে দাপটের সাথে খেলে টি-টোয়েন্টিতে তার ছিঁটেফোঁটাও দেখা যায় না। কেনো বাংলাদেশ ২০ ওভারের ম্যাচে বারবার ব্যর্থ হচ্ছে একেবারে দুই চোখে আঙ্গুল দিয়ে তা দেখিয়ে দিলেন অলরাউন্ডার শেখ মেহেদী হাসান।

টি-টোয়েন্টি ফরমেটে বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি ভোগে ব্যাটিংয়ে। উইকেটে এসে যেভাবে ক্যারাবিয়ান ক্রিকেটারা চার ছক্কার পরসা সাজিয়ে নিজেদের ইনিংসটা রাঙ্গান, ঠিক একই কায়দায় ব্যর্থ বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। উইকেটে এসে একের পর এক ডট বল খেলে নিজেদের উপর প্রেশার তৈরি করেন প্রথমে এরপর বড় শট খেলতে গিয়ে উইকেট উপহার দিয়ে আসেন প্রতিপক্ষকে। সবাই পারলেও বাংলাদেশ কেনো বড় শট খেলে দ্রুত রান তুলতে পারেনা?

জিম্বাবুয়ের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে আজ দুপুরে (মঙ্গলবার) মিরপুরে সংবাদমাধ্যমকে মেহেদী বলেন, ‘দেখুন, আমরা বাংলাদেশি, আমরা কেউই পাওয়ার হিটার না। আমরা চাইলে আন্দ্রে রাসেল বা পোলার্ড হতে পারব না। আমাদের সামর্থ্যের মধ্যে যেটুকু আছে তা দিয়ে যতটা উন্নতি করা যায়।’

তাহলে কি দলের জন্য পাওয়ার হিটিং কোচ দরকার আছে? এমন প্রশ্নের উত্তরটাও সোজাসাপটা দিলেন এই অলরাউন্ডার। তিনি জানান কোচ নিয়োগ করলেও এই রাতারাতি আসবে না সাফল্য।

‘হ্যাঁ পাওয়ার হিটিং কোচের দরকার। তবে আপনার যে স্কিল আছে, একে কোচ হয়ত ১০ শতাংশ এগিয়ে দিবে। কিন্তু ৩০ শতাংশকে ১০০ শতাংশকে পৌঁছে দিতে পারবে না। আমরা জন্মগতভাবেই এরকম। রাতারাতি পরিবর্তন করা মনে হয় না সম্ভব।’

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের বাস্তবা নিয়ে মেহেদী, ‘আমরা প্রায় ১৫ বছরের মত আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলে ফেলেছি। হলে আরও আগেই হয়ে যেত। যেহেতু হচ্ছে না, আমাদের এটা নিয়ে আরও কাজ করতে হবে। পাওয়ার হিটিংয়ের কথা সবসময়ই আসে। কিন্তু এটা ঠিক না। আমাদের সামর্থ্যের বাইরে চাইলেও করতে পারবে না। এটা আপনাদের সবাইকে বিশ্বাস করতে হবে।’

 

তবে শেষে আশার বাণীও শুনান মাহাদি। দলীয় ভাবে পারফরম্যান্স করতে পারলে অষ্টেলিয়া বিশ্বকাপে ভালো করার সম্ভাবনা দেখছেন এই তরুণ অলরাউন্ডার।

তিনি বলেন, ‘অবশ্যই। সম্ভব না কেন? টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পাঁচটা ভালো বোলার লাগে। আলহামদুলিল্লাহ আমাদের দলে বোলার আছে।

যে ৭০ শতাংশ সামর্থ্য আছে ব্যাটাররা যদি এটাকে ৯০ শতাংশ করে দিতে পারত, হয়ত ফলাফল আরও পক্ষে আসতো। বিশ্বকাপে বাজে ম্যাচ কম হয়েছে। ক্লোজ ম্যাচ ছিল, ছিটকে গেছি। এখান থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ থাকে। বোলার সবসময়ই ভালো আছে।’


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন