গলে ইতিহাস গড়ে শ্রীলঙ্কাকে হারানো পাকিস্তান দ্বিতীয় টেস্টে এসে দেখলো মুদ্রার ওপর পিঠ। লঙ্কান স্পিনারদের সামনে দাঁড়তেই পারেনি সফরকারীরা। জয়াসুরিয়া-মেন্ডিসদের কাছে একেবারে অসহায় আত্মসমর্পণ করলেন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানরা।

প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার করা ৩৭৮ রানের জবাবে পাকিস্তান গুটিয়ে যায় ২৩১ রানে। আগের ম্যাচের নায়ক আব্দুল্লাহ শফিককে শূন্য রানে সাজঘরে ফেরান পেসার ফানার্ন্দো। এরপর পাকিস্তান ব্যাটিং লাইনআপে ধস নামানোর কাজটা করেন দুই স্পিনার প্রভাস জয়াসুরিয়া ও রামেস মেন্ডিস।

দ্বিতীয় ইনিংসে ধনঞ্জয়া সিলভার করা ১০৯ রান ও অধিনায়ক করুণারত্নের ৬১ রানের ইনিংসে ভর করে ৮ উইকেটে ৩৬০ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে স্বাগতিক অধিনায়ক।

ফলে ৫০৮ রানের পাহাড় সমান লক্ষ্য তাড়া করে জেতা অসম্ভব হলেও ম্যাচ বাঁচিয়ে সিরিজ জয়ের পথ ধরে বেশ ভালোই এগুচ্ছিলো পাকিস্তান। ১ উইকেট হারিয়ে ৮৯ রানে করা পাকিস্তান ব্যাটসম্যানরা গলে শেষের দিনে আর পারলো লড়াই করতে। ইমাম-উল হকের ৪৯ ও অধিনায়ক বাবর আজমের করা ৮১ রান হারের ব্যবধান কমিয়েছে শুধু।

প্রথম ইনিংসে ৮০ রানে তিন উইকেট নেওয়া জয়াসুরিয়ার ম্যাচে শিকার ৮ উইকেট। সিরিজের প্রথম টেস্টে দল হারলেও বল হাতে সফল ছিলেন তিনি। সে ম্যাচেও এক ইনিংসে ৫ উইকেটসহ ৯টি শিকার করেন। মোট ১৭ উইকেট নিয়ে তাই সিরিজ সেরার পুরস্কারটি উঠে জয়াসুরিয়ার হাতে।

তিন টেস্টের ক্যারিয়ারে ৬ ইনিংসের চারটিতেই ৫টি করে উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়লেন জয়াসুরিয়া।

১-১ ড্র’তে শেষ হলো দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ


সর্বশেষ খবর পেতে আমাদের Google News ফিডটি ফলো করুন