ফুটবল

বিশ্বকাপে গোল্ডেন গ্লাভস জিতেও আলিসন, এদেরসনদের পেছনে রয়েছেন মার্তিনেজ

desk

৫ জানুয়ারী ২০২৩, রাত ১০:৪৫ সময়

[ Black and Teal Doodle SEO Tech Tips Youtube Thumbnail - Copy.jpg ]

বিশ্বকাপে চরম হতাশায় ভুগেছেন আলিসন। বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পেনাল্টি শুট আউটে ক্রোয়েশিয়ার কাছে হেরে বাদ পড়তে হয়েছে ব্রাজিলকে। সেখানে একটিও পেনাল্টি আটকাতে পারেননি ব্রাজিলের এক নম্বর গোলরক্ষক আলিসন বেকার। 

২০২২/২৩  মৌসুম আলিসনের ক্লাব লিভারপুলও খুব একটা ভালো করতে পারছে না। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ৬ নম্বর স্থানে রয়েছে তার দল। এত বাজে সময় পার করার পরেও ২০২২ সালে নিজের জাল অক্ষত রাখায় প্রথম স্থানে রয়েছেন আলিসন।

২০২২ সালে জাতীয় দল ও ক্লাব মিলে ৬২ ম্যাচে খেলতে নেমে ২৯ ম্যাচে কোন গোল হজম করেনি আলিসন। এটিই ২০২২ সালে কোন গোলরক্ষকের জন্য সবচেয়ে বেশি ক্লিনশীট।

২০২২ সালে সবচেয়ে বেশি ক্লিনশীট রাখার ক্ষেত্রে দ্বিতীয় নামটিও ব্রাজিলের গোলরক্ষকের। তিনি ম্যানসিটির এক নম্বর গোলরক্ষক এদেরসন। বিশ্বকাপে তারও একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়েছিল। ক্যামরুনের বিপক্ষে সেই ম্যাচেও একটি গোল হজম করেন এদেরসন ম্যাচটিও হেরে যায় ব্রাজিল।

২০২২ সালে ক্লাব ও জাতীয় দল মিলে ৪৮ টি ম্যাচ খেলেছেন এদেরসন। সেখানে ২৪ টি ম্যাচে কোন গোল হজম করতে হয়নি তাকে। এটি ২০২২ সালে দ্বিতীয় সবচেয়ে বেশি ক্লীনশীট রাখার রেকর্ড।

এরপরের স্থানে ক্লিনশীট রাখার ব্যাপারে সবচেয়ে এগিয়ে আছেন রিয়াল সোসিয়েদাদের স্প্যানিশ গোলরক্ষক অ্যালেক্স রেমিরোর। তিনি ৪৪ ম্যাচে ২২টি ক্লিনশীট রেখেছেন। এরপরের নামটি জার্মান ও বার্সেলোনার গোলরক্ষক টের-স্টেগেনের। তিনি ৫০ ম্যাচে ২১টি ক্লিনশীট রেখেছেন।

আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক এবং গোল্ডেন গ্লাভস জয়ী গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেজ ক্লিনশীট রাখার ব্যাপারে বেশ অনেকটাই পিছিয়ে আছেন। এমনকি তিনি আর্জেন্টিনার দ্বিতীয় গোলরক্ষক গেরোনিমো রুলির থেকেও পিছিয়ে আছেন। গেরোনিমো রুলি ২০২২ সালে ৩৯ ম্যাচে ১৭টি ক্লিনশীট রেখেছেন। এমিলিয়ানো মার্তিনেজও ১৭ টি ক্লিনশীট রেখেছেন তবে তিনি ৪৮ টি ম্যাচ খেলেছেন।

//